এতিম শিক্ষার্থী জহুরার লেখাপড়ার দায়িত্ব নিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান

380

।। নিজস্ব প্রতিনিধি।।

কুমিল্লার দাউদকান্দির চরগোয়ালী বুহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির মেধাবী ছাত্রী (এতিম) জহুরা আক্তারের লেখাপড়ার যাবতীয় খরচের দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন দাউদকান্দি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মেজর মোহাম্মদ আলী (অব.)।

শনিবার (৬ জুলাই ২০১৯) দুপুরে বিদ্যালয়ের নবাগত ম্যানেজিং কমিটির পরিচিতিমূলক একটি অনুষ্ঠানে, মেধাবী জহুরা আক্তারের সাহস ও আবেগময় বক্তব্য শুনে তিনি তার লেখাপড়ার খরচের দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নবাগত চেয়ারম্যান এফ এম মুশফিকুর রহমানের সভাপতিত্বে  সভায় প্রধান অতিথিও ছিলেন মেজর মোহাম্মদ আলী (অব.)।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যের একপর্যায়ে জানতে চান, ‘স্কুলের সবচেয়ে স্মার্ট শিক্ষার্থী কে? আমি তার কাছ থেকে স্কুলের অসুবিধার কথা জানতে চাই’। প্রায় ৫শ শিক্ষার্থীদের মধ্যে তখন হাত তুলেন জহুরা আক্তার। এ সময় জহুরাকে মঞ্চে ডেকে নিয়ে মাইক্রোফোন তুলে দেন উপজেলা চেয়ারম্যান। পুরো অনুষ্ঠানে বয়ে যায় কড়তালির বন্যা।

ছবি : বিদ্যালয়ের নবাগত ম্যানেজিং কমিটির পরিচিতিমূলক অনুষ্ঠানের কিছু অংশ।

হেড মাস্টারের রক্ষচক্ষু উপেক্ষা করে, সাহসিকতার সঙ্গে জহুরা এক এক করে তার স্কুলের অসুবিধা ও খুবই দরকারি বিষয়গুলির কথা তুলে ধরেন। এ সময় উপজেলা চেয়ারম্যান সাহসী জহুরার বিস্তারিত পরিচয় জানতে চান। উত্তরে জহুরা জানায়, তার গ্রাম চরগোয়ালী। বাবা জামাল উদ্দিন ক্যান্সারে মারা গেছেন। ভাইও নেই। তারা চার বোন। অনেক কষ্ট করেই সে লেখাপড়া করছে। এবং বিজ্ঞান বিভাগে সাফল্য ধরে রেখেছে- ক্লাস রুল ৪। এই কথাগুলো বলতে বলতে জহুরা ঠুঁকরে কেঁদে উঠেন। পুরো অনুষ্ঠানে তখন পিনপতন নিরবতা। জহুরার কষ্টের কথা শুনে আবেগে চোখ মুছেন ‍উপজেলা চেয়ারম্যান এবং অতিথিরা।

এরপর উপজেলা চেয়ারম্যান জহুরার লেখাপড়ার খরচের দায়িত্ব গ্রহণের ঘোষণা দেন। এ ঘোষণা শুনে উল্লাসে ফেটে পড়ে স্কুলের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। এরপর স্কুলের সকল শিক্ষক ও জহুরার বৃদ্ধ দাদা উপজেলা চেয়ারম্যানকে জড়িয়ে ধরে কৃতজ্ঞতা জানান।

ছবি: নাতনি লেখাপড়ার খরচের দায়িত্ব নেয়ায় উপজেলা চেয়ারম্যানকে ধন্যবাদ জানান জহুরা ও তার দাদা।

উপজেলা চেয়ারম্যানের ঘোষণা শুনে প্রতিক্রিয়ায় জহুরা আক্তার জানান, ‘স্যারকে অনেক কৃতজ্ঞা জানাই। এর মাধ্যমে আমি খুবই উৎসাহিত। আসন্ন এসএসসি পরীক্ষায় আমি ভালো ফলাফল করে উপজেলা চেয়ারম্যান স্যারের এই উপহারের সম্মান রাখবো ইনশাল্লাহ।’

 

 

 

 

 

 

 

 

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়, কিন্তু ট্র্যাকব্যাক এবং পিংব্যাক খোলা.