শিশু শিক্ষার্থীদের কাছে আকর্ষণীয় ‘যারিফ আলী স্মৃতি বৃত্তি পরীক্ষা ২০১৮’র ফল প্রকাশ

।। নিজস্ব প্রতিনিধি।।

কুমিল্লার দাউদকান্দি ও মেঘনা উপজেলার কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষার মানোন্নয়নে অনবদ্য অবদান রাখা ‘যারিফ আলী  স্মৃতি বৃত্তি পরীক্ষা ২০১৮’র ফল প্রকাশ করা হয়েছে।

সোমবার মেজর জেনারেল (অব.) সুবিদ আলী ভূঁইয়া একাডেমী ফাউন্ডেশন কর্তৃপক্ষ এ ফলাফল ঘোষণা করে। এতে, দাউদকান্দি উপজেলায় ট্যালেন্ট গ্রেডে ১৬ জন, সাধারণ গ্রেডে ৭৪ জন এবং ইউনিয়ন কোটায় ১৪ জন বৃত্তি পেয়েছে। এই তিন ক্যাটাগরিতে এই উপজেলায়  সর্বমোট বৃত্তি পেয়েছে ১০৪ জন।

অপরদিকে মেঘনা উপজেলায় ট্যালেন্ট গ্রেডে ৫ জন, সাধারণ গ্রেডে ৩৬ জন এবং ইউনিয়ন কোটায় ৮ জন। মেঘনায় এ তিন ক্যাটাগরিতে সর্বমোট বৃত্তি পেয়েছে ৪৯ জন।

উল্লেখ্য, শুধু চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য আয়োজিত এই বৃত্তি দাউদকান্দি উপজেলায়  চালু হয় ২০০৯ সাল থেকে। আর মেঘনা উপজেলায় চালু হয় ২০১৪ সাল থেকে।

২০০৯ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত মোট ৮৮৮ জন ছাত্র-ছাত্রীকে যারিফ আলী স্মৃতি বৃত্তি প্রদান করা হয়। ২০১৭ পর্যন্ত বৃত্তির জন্য প্রদান করা অর্থের পরিমাণ প্রায় ২৪, ০০,০০০ চব্বিশ লাখ টাকারও বেশি।

৩টি ক্যাটাগরিতে দেয়া হয় এই বৃত্তি।

১. ট্যালেন্ট গ্রেডে- ২০০০ টাকা

২. সাধারণ গ্রেডে- ১৫০০ টাকা

৩. ইউনিয়ন কোটায়- ১০০০ টাকা

প্রতিবছর বৃত্তি পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে অংশগ্রহণকারী ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্য থেকে শতকরা প্রায় ১০%  শিক্ষার্থীকে বৃত্তি দেয়া হয়।

উল্লেখ্য, যারিফ আলীর  জন্ম ১৯৯৯ সালের ১৫ ডিসেম্বর দাউদকান্দি উপজেলার জুরানপুর গ্রামের সম্ভ্রান্ত ভূঁইয়া পরিবারে। বাবা মেজর (অব.) মোহাম্মদ আলী, বর্তমানে দাউদকান্দি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান। মা- ক্যাডেট রোহানী আমরীন। দাদা মেজর জেনারেল (অব.) মো. সুবিদ আলী ভূঁইয়া, এমপি ও দাদি জনাবা মাহমুদা ভূঁইয়া।

২০০৭ সালের ২২ অক্টোবর রাজশাহী সেনানিবাস থেকে বাবা-মায়ের সাথে ঢাকা ফেরার পথে নাটোরের হাটিকুমরুল নামক স্থানে এক মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান যারিফ আলী। এতে স্তব্দ করে দেয় জেনারেল ভূঁইয়ার গোটা পরিবারকে। নাতির অকাল মৃ্ত্যুতে শোকে মূহ্যমান দাদা-দাদী নির্বাক হয়ে পড়েন। যারিফ আলীর স্মৃতিকে অম্লান করে রাখার জন্য যারিফের দাদা-দাদী দাউদকান্দি ও মেঘনা উপজেলায় চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে ২০০৯ সালে যারিফ আলী স্মৃতি বৃত্তি প্রবর্তন করেন। চালুর পর থেকেই দাউদকান্দি ও মেঘনার কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষার মানোন্নয়নে যারিফ আলী স্মৃতি বৃত্তি  গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে।

শেয়ার করুন:

Related posts