দাউদকান্দি থানার ওসির তড়িৎ উদ্যোগ,  নিরাপদে বাড়ি গেলো প্রতারণার শিকার এক কিশোরী

।। নিজস্ব প্রতিনিধি।।

কুমিল্লার দাউদকান্দি মডেল থানার ওসি মো. রফিকুল ইসলামের তড়িৎ উদ্যোগে প্রতারণা শিকার এক কিশোরী নিরাপদে তার বাবা-মার কাছে পৌঁছেছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, শনিবার দুপুরে দাউদকান্দির ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের টোল প্লাজার পাশে সাহাপাড়া রাস্তায় স্কুল ড্রেস পরা একটি মেয়েকে দেখতে পান স্থানীয়রা। নাম ও ঠিকানা জিজ্ঞেস করলে কিছু বলতে পারছিল না মেয়েটি। পরে মাতৃছায়া একাডেমির শিক্ষক মো. ইমন আহমেদ বিষয়টি  এক সাংবাদিককে জানান। এরপর  স্থানীয় সাংবাদিক ঘটনাস্থলে এসে মেয়েটিকে উদ্ধার করে দাউদকান্দি মডেল থানায় পৌঁছে দেন।

এ ঘটনায় দাউদকান্দি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. রফিকুল ইসলাম তাৎক্ষণিকভাবে বিভিন্ন জায়গায় ফোন করে মেয়েটির পরিচয় নিশ্চিত হন। পরে জানা যায়, সে দাউদকান্দির গৌরীপুরের পেন্নাই গ্রামের শাহাদাত হোসেনের মেয়ে। । এরপর বাবা-মায়ের কাছে মেয়েটিকে  বুঝিয়ে দেন ওসি রফিকুল ইসলাম।

জানা যায়, প্রতারক চক্র মেয়েটিকে চেতনাশক ওষুধ দিয়েছিল, এ কারণেই মেয়েটি তার নাম-পরিচয় বলতে পারেনি।

মেয়েটির বাবা জানান, তার মেয়ে প্রতিদিনের মতো সকালে স্কুলে যায়। পরে কে বা কারা তার বাবা শাহাদাৎ হোসেনের অসুস্থতার কথা বলে মেয়েটিকে স্কুল থেকে বের করে নিয়ে যায়। শাহাদাতের ছোট মেয়ে এ খবর  বাড়িতে গিয়ে সবাইকে জানায় যে, তার বড় বোনকে কিছু লোক নিয়ে গেছে। এরপর তারা মেয়েটিকে খুঁজতে থাকেন। এরইমধ্যে খবর আসে মেয়েটি দাউদকান্দি মডেল থানায় উদ্ধার হয়েছে।

 

 

–০–

 

 

 

 

 

শেয়ার করুন:

Related posts