জাতীয় নির্বাচনের আগেই কাজ শুরু হবে দাউদকান্দি নদী বন্দরের, থাকবে সর্বাধুনিক সুযোগ-সুবিধা

।। নিজস্ব প্রতিনিধি।।
জাতীয় নির্বাচনের আগেই কাজ শুরু হবে দাউদকান্দি নদী বন্দরের, থাকবে সর্বাধুনিক সুযোগ-সুবিধা। সেই সঙ্গে আনুষাঙ্গিক অন্যান্য বিষয়সহ যোগাযোগ ব্যবস্থা হবে অত্যন্ত উন্নত ও যুগপোযোগী। এমনই তথ্য জানিয়েছেন বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান কমোডোর মো. মোজাম্মেল হক।

ছবি : দাউদকান্দি নদী বন্দরের নকশা।

বৃহস্পতিবার বিকেলে কুমিল্লার দাউদকান্দিতে বন্দরের জন্য স্পট পরিদর্শন পরবর্তী মত বিনিময় সভায় তিনি এ কথা জানান।

ছবি: দাউদকান্দি নদী বন্দরের স্পট পরির্শনের একাংশ।

এ সময় তিনি আরও জানান, স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতায় বালু ব্যবসায়ী ও ট্রাক মালিকদের সঙ্গে আলোচনা করে আধুনিক প্রযুক্তির সমন্বয়ে উন্নয়ন করা হবে। মালামাল লোড-আনলোডিং ব্যবস্থা, যাত্রী ছাউনি, টয়লেটসহ দরকারি সবকিছুই থাকবে দাউদকান্দি বন্দরে।

এরইমধ্যে  অবকাঠামো উন্নয়নসহ ৩টি প্রকল্পের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে  বলেও জানান তিনি।

তিনি বলেন, এরমধ্যে ১টি প্রকল্পের জন্য ৫শ ২০ কোটি টাকা অনুমোদন করা হয়েছে।

মোজাম্মেল হক আরও জানান, এখানে ভবিষ্যতে রেললাইন হবে, সেই রেললাইনের সঙ্গে বন্দরকেও যুক্ত করা হবে। এখানে বিআইডব্লিউটিএ’র নিজস্ব অফিস ও কন্ট্রোলিং ব্যবস্থা থাকবে। দাউদকান্দি বন্দর চালু হলে সরকারের রাজস্ব আয় বাড়বে ব্যাপকহারে। অসংখ্য লোকের কর্মসংস্থানও হবে।

দাউদকান্দি নদী বন্দর বাস্তবায়নে স্থানীয় প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিকসহ বিভিন্ন পেশাজীবীদের সহযোগিতা কামনা করেন মোজাম্মেল হক।

ছবি : দাউদকান্দি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মেজর মোহাম্মদ আলী (অব.)সহ স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে মত বিনিময় করছেন বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান মো. মোজাম্মেল হক।

স্পট পরিদর্শন পরবর্তী মত বিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন দাউদকান্দি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মেজর মোহাম্মদ আলী (অব.), উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাহবুব আলম, দাউদকান্দি পৌর মেয়র নাঈম ইউসুফ সেঈন, উপজেলা পরিষদ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রোজিনা আক্তার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আহসান হাবিব লীল মিয়া, পৌর প্যানেল মেয়র রকিব উদ্দিন, ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম, মাসুদ আলমসহ অন্যান্যরা।

শেয়ার করুন:

Related posts